প্লাস্টিক বোতলের ১০ টি অসাধারন ব্যবহার

কোন না কোন ভাবে আমাদের ঘরে বিভিন্ন রকমের প্লাস্টিকের বোতল জমা হয়েই যায়। এই যেমন ধরুন মিনারেল ওয়াটার, কোকা-কোলা, সেভেনআপ, স্প্রাইট, আরসি কোলা ইত্যাদি পানীয় এবং বিভিন্ন ফলের জুস সঙ্গে একটা করে বোতল পাওয়া যায়। আর কি ভাবে যে একটা সময় বোতলের পাহাড় জমে যায়! অনেকে কি করেন, যে কটা ব্যবহার করার হয় সে কটা রেখে সময়েরটা সময়েই ফেলে দেন। আবার অনেকে কেজি দড়ে বিক্রি করে থাকেন। সারা বছরে ধরুন ২ কি ৩ জনের পরিবারে ৬ থেকে ৭ কেজি  প্লাস্টিকের বোতল  জমা হয়। তবে এটা নির্ভর করে। অনেকের বেশিও হয় আবার কমও হতে পারে। আর বিক্রি করলেই বা কত টাকা আর পাওয়া যায়। সেটা নিশ্চয় বলার দরকার নেই।

আমাদের একটা বাজে আভ্যাসও আছে। এই বোতলগুলো আমরা হরহামেশাই একাধিকবার ব্যবহার করে থাকি। যা কিনা একবারই ব্যবহার করার কথা। কারন এ বোতলগুলো পলিইথিলিন টেরেপথেলেট নামের প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি। যা আমাদের স্বাস্থ্য পক্ষে যথেষ্ট ক্ষতিকারক। তাই একবার ব্যবহার্য প্লাস্টিকের বোতল একাধিকবার ব্যবহার না করাই ভালো। আর যদি একান্ত ভাবে ব্যবহার করতেই হয় তবে ঘন ঘন বোতল পাল্টান। কম বোতল তো আর ঘরে আসে না। আর আজ থেকে বোতল ফেলারও দড়কার পরবে না।



বোতলের বাড়ি

হ্যাঁ একটু আবাক হবারই বিষয়। অনেকেই কিন্তু হাজার হাজার প্লাস্টিকের বোতল জমিয়ে দিব্যি বোতলের ঘর বানিয়ে ফেলছেন। তবে আমাদের এতো বড় প্রজেক্টে এ হাত না দিলেও চলবে। বাড়ি ঘরে বানানো যায় এমন কিছু সহজ জিনিসই আজ শিখবো।




বোতল দিয়ে টব
সাধারণত আমারা বেশ দাম দিয়েই বাজার থেকে টব কিনে থাকি। মাটির টব হলে তো ভেঙে যাবার একটা ভয় থাকে। তাই তো প্লাস্টিকের বোতল দিয়েই বানিয়ে ফেলতে পারেন আপনার গাছ লাগানোর পাত্রটি। ভাঙারও ভয় থাকবে না, আর আপনি আপনার ইচ্ছে মতো আকার দিতে পারবেন পাত্রটিকে। এবার আপনি আপনার ইচ্ছে মতো সব্জি লাগান বা ফুল গাছ।









হ্যাঙ্গিং টব

পদ্ধতি ১ -বিভিন্ন আকার আকৃতির হ্যাঙ্গিং টব বানান যায়।
কি কি লাগবে 
সাধারণত এই ধরনের পাত্র বানাবার জন্য দেড় লিটার বা এরও বড় মাপের কোকা-   
কোলাসেভেনআপস্প্রাইট বোতল দড়কার, কাচি,শক্ত দড়ি।
প্রথমত, যদি লম্বালম্বি ভাবে বোতল ঝোলাতে হয় তাহলে বোতলটির মুখের কাছে পেরেক দিয়ে ফুটো 
করে নিন। যদি বোতলের মুখটি শক্ত লাগে তাহলে পেরেকটি একটু গরম করে নিন। তাহলে তা 
সহজেই প্রবেশ করবে। এবার নিচের ছবি অনুযায়ী কাঁচি দিয়ে বোতলের দু'ধার সমান ভাবে কাটুন। 
ব্যাস! এবার বোতলটিতে মাটি ভরে আপনার মন পসন্দ গাছটি লাগিয়ে দড়ি  দিয়ে ঝুলিয়ে দিন।


                           




পদ্ধতি ২ প্রথমে বোতলটিকে শুয়ে রাখুন। নিচের ছবি অনুসারে বোতলটিতে ফুটো করুন। এবার প্লাস্টিকের বোতলের উপরিভাগ কেটে গাছ লাগানো যায়। উপরের অংশ কেটে অর্ধেক বা তারও একটু কম রেখে মাটি ভরে নিন। এবার পছন্দ মত যে কোনো ছোট গাছ লাগিয়ে জানালার পাশে ঝুলিয়ে দিন অথবা কার্ণিশে রেখে দিন। এমন স্থানে রাখুন যাতে গাছটি পর্যাপ্ত আলো হাওয়া পায়।







আরও নানা রকম ভাবে ঝুলাতে পারেন বিভিন্ন রকমের গাছ। আপনি আপনার পছন্দ অনুসারে বোতল কেটে তৈরি করুন হ্যাঙ্গিং ফুলের বা সব্জির টব।







ফুলদানি
প্লাস্টিকের বোতলকে ফুলদানি বানিয়েও ব্যবহার করা যেতে পারে।




নকল ফুল
নকল ফুলও কিন্তু বানিয়ে ফেলতে পারেন ফেলে রাখা বোতলটি দিয়ে।



                            



গিফট বা জিনিস রাখার পাত্র/জার







পেনসিল/কলমদানি





পিগি ব্যাঙ্ক



আলোক সজ্জাতে







বাচ্চাদের খেলনা




ব্যাগের ঢাকনা



 নিচের ভিডিও টি অবশ্যই দেখতে ভুলবেন না। প্লাস্টিকের বোতল দিয়ে যে কি জগৎ তৈরি করা যায় ভিডিও টি দেখলেই বুঝতে পারবেন।

ভিডিও :

                            







একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

1 মন্তব্য

  1. খুব ভাল একটা পোস্ট। বিশেষ করে গাছ লাগাবার আইডিয়া গুলো আমার অনেক কাজে লাগবে।

    উত্তর দিনমুছুন