খুসকি দূর করবে লেবুর খোসা

শীতে চুলের সবচেয়ে বড় শত্রু হল খুসকি। যতই শ্যাম্পু করি না কেন, এই খুসকির থেকে যেন কিছুতেই মুক্তি পাওয়া যায় না। আমি আবার খুসকি দূর করার জন্য যে শ্যাম্পু বাজারে পাওয়া যায়, সেগুলিও একদমই ব্যবহার করি না। এই প্রকার শ্যাম্পু আমার চুলকে খুব রুক্ষ করে দেয়। তাই খুসকি দূর করার জন্য আমার একমাত্র ভরসা ঘরোয়া উপায়। খুসকির হাত থেকে মুক্তি পেতে রইল আজকের পোস্টে এমনই কয়েকটা টিপ্স। যা আপনি ফেলে দেওয়া লেবুর খোসাকে ব্যবহার করে তৈরি করতে পারবেন


সাধারণত খুসির সমস্যা দূর করার জন্য আমরা লেবুর রস ব্যবহার করি। তবে খুব বেশি খুসকি থাকলে বা খুসকি বারবার ফিরে এলে, লেবুর রসও কাজে আসে না। এই অভিজ্ঞতা অবশ্য আমার আছে। তাই এই সমস্যার সব থেকে ভালো সমাধান হল তিন থেকে চারটে পাতিলেবুর  (যে কোন লেবুও চলবে)খোসা ছাড়িয়ে নিয়ে সেটা ভাল করে জলে ফুটিয়ে নিতে হবে। এই ফুটিয়ে নেওয়া জল ঠান্ডা করে রেখে দিন। চুল শ্যাম্পু করার পর এই ফুটিয়ে নেওয়া জল চুলে লাগিয়ে নেবে। তারপর ভাল করে জল দিয়ে চুল ধুয়ে নেবে। এই পদ্ধতিটি সপ্তাহে দু’বার করলে সুফল পাবে
আরও একটা উপায় হল লেবুর খোসা রোদে শুকিয়ে  নিন। এবার খোসাগুলি মিক্সিতে গুঁড়ো করে নিন। শ্যাম্পুর আগে সামান্য জলে গুঁড়ো মিশিয়ে চুলের গোঁড়ায় লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিটের মতো। তারপর শ্যাম্পু করে নিন।আরও একটি পদ্ধতি হল, খোসার গুঁড়ো এবং মেথির গুঁড়ো এক সঙ্গে নারকেল তেলে মিশিয়ে নিয়ে চুলে ব্যবহার করতে পারেন।
যাদের অনেক খুসকির সমস্যা রয়েছে, তাদের হয়তো শুরুতে লেবুর খোসা ব্যবহার করলে  চুলের গোঁড়ায় জ্বালা অনুভব হতে পারে, কিন্তু নিয়মিত ব্যবহার করলে জ্বালা ভাব কমে যাবে। আর একটা খুসকি সেরে যাওয়ার লক্ষণও বটে। 
টিপসগুলি ভালো লাগলে লাইক ও শেয়ার করুন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ