চুলের জন্য বাদাম তেল ও ক্যাস্টর অয়েলের উপকারিতা

চুলের জন্য বাদাম তেল ও ক্যাস্টর অয়েলের উপকারিতা

চুলের জন্য বাদাম তেল ও ক্যাস্টর অয়েলের উপকারিতা 



বাদাম তেলের নিয়মিত ব্যবহার, মাথার ত্বকের রক্ত চলাচল ঠিক রাখে, চুলের পুষ্টি যোগায়, নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। প্রচুর পরিমাণে মশ্চারাইজার থাকার দরুন, আমন্ড অয়েল( বাদাম তেল) একটি ন্যাচারাল কন্ডিশনার হিসেবে কাজ করে।

বাদাম তেল দুই রকমের হয়, একটি মিষ্টি আরেকটিতে তেতো। এই তেল চুলের যত্নে দারুণ ভাবে কাজে লাগে। ভিটামিন ই, ফ্যাটি এসিড এবং ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ এই তেল ব্যবহারের নিয়মানুবর্তিতা, ড্রাই অথবা ফ্রিজি হেয়ারকে সফট বা কোমল করে, চুলের গোড়া মজবুত করে, চুল সিল্কি এবং শাইনি করে, গোড়া থেকে চুল ভাঙ্গা রোধ করে।

অন্য দিকে চুলকে লম্বা, ঘন করতে এবং তার প্রাকৃতিক উজ্বলতা বজায় রাখতে নিয়মিতভাবে ক্যাস্টর অয়েল (রেড়ির তেল) দিয়ে মাথায় ম্যাসাজ করা উচিত। 

চুলের কোমলভাব বজায় রাখতে হেয়ার কণ্ডিশনার ব্যবহার করা হয়। চুলকে তার গোড়া থেকে কণ্ডিশন করতে ক্যাস্টর অয়েলও অনেক সাহায্য করে। চুল পড়া বন্ধ করে। ক্যাস্টর অয়েল থেকে রুক্ষ এবং নিষ্প্রাণ চুলের চিকিৎসাও করা যেতে পারে এই তেল দিয়ে। তাই যাদের চুলের সমস্যা রয়েছে তাদের জন্য এই দুটি তেল দারুণ উপকারী।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য